bangla pdf books

বডি ল্যাংগুয়েজ pdf download free

নাম:- বডি ল্যাংগুয়েজ pdf download

লেখকঃ- এলান পীস। 

পৃষ্ঠাঃ- ৯০। 

বডি ল্যাংগুয়েজ pdf download সাইজঃ-   ৫৪ এম্বি। 

বডি ল্যাংগুয়েজ pdf download ভূমিকা :-

১৯৭১ সালে এক সেমিনারে আমি যখন শারীরিক ভাষা সম্পর্কে প্রথম। শুনলাম, এত বেশি উত্তেজিত হয়ে উঠলাম যে আরাে শিখতে চাইলাম এই ব্যাপারে। 

বক্তা আমাদের জানালেন যে লাউসভিল ইউনিভার্সিটির প্রফেসর রয় বাৰ্ডউইসল এর গবেষণা অনুযায়ী মানুষ তার অঙ্গভঙ্গি, ভাবভঙ্গি, অবস্থান ও দূরত্বের মাধ্যমে অন্য যে যেকোন প্রক্রিয়া থেকে বেশি মনােভাব প্রকাশ করে সেসময় আমি বেশ কয়েক বছর কমিশন সেলসম্যান ছিলাম আর বিক্রয় প্রণালীর উপর দীর্ঘতর কোর্স করেছিলাম, কিন্তু সেসব কোর্সের কোনটাতেই শারীরিক ভাষার মাধ্যমে যােগাযােগের ব্যাপারে কিছু শেখানাে হয়নি।

আমার নিজস্ব গবেষণায় মনে হয়েছে শারীরিক ভাষা সম্পর্কে খুব কম। গুরুত্বপূর্ণ তথ্য রয়েছে। যদিও লাইব্রেরি ও ইউনিভার্সিটিতে বেশি কিছু গবেষণার রেকর্ড রয়েছে, সেগুলাে এমন মানুষের তৈরি করা কিছু দলিল ও ধারণার স্তুপ, যারা অন্য মানুষের সাথে খুব কম মিশেছে বা একেবারেই মিশেনি, আমি এটা বলছি না যে কাজগুলাে গুরুত্বপূর্ণ নয়, তবে এগুলাে এত বেশি গ্রন্থগত যে সাধারণ মানুষের ব্যবহার করার মত নয়।

এই body language bangla pdf /  বডি ল্যাংগুয়েজ pdf download বই লেখার সময় আমি বিখ্যাত বিজ্ঞানীদের অনেক গবেষণার সারাংশ।নিয়েছি আর অন্যান্য পেশা- যেমন, সমাজবিজ্ঞানী, নৃতাত্ত্বিক, প্রাণীবিজ্ঞানী, শিক্ষক, মনােবিজ্ঞানী, কাউন্সেলর, নেগােশিয়েটর ও সেলসম্যানের গবেষণাগুলােকে একত্রিত করেছি।

এই বডি ল্যাংগুয়েজ pdf download / body language bangla pdf  বইয়ে ভিডিওটেপ ও ফিল্ম থেকে নেয়া অসংখ্য কিভাবে ফিচার লিপিবদ্ধ আছে, সেইসাথে রয়েছে অসংখ্য মানুষের অভিজ্ঞতা ও মতামত, যাদের আমি ইন্টারভিউ নিয়েছি, নিয়ােগ দিয়েছি, গত পনের বছর ধরে পরিচালনা করেছি।

body language bangla pdf এই বইটি শারীরিক ভাষার ব্যাপারে শেষকথাও নয়, বুকষ্টোরের অন্যান্য বইয়ের মত ম্যাজিক ফমূলাও এতে নেই, এর উদ্দেশ্য হল পাঠকদেরকে শারীরিক ভাষার আকার, ইঙ্গিত সম্পর্কে জানানাে, যাতে এর মাধ্যমে তারা অন্য মানুষের সাথে খুব সহজে যােগাযােগ রক্ষা করতে পারে ।

বডি ল্যাংগুয়েজ pdf download এই বইটি শারীরিক ভাষা ও অঙ্গভঙ্গির প্রতিটি অংশকে পৃথক ও পরীক্ষা করেছে, যদিও কিছু ভঙ্গিমা অন্যদের চেয়ে বিচ্ছিন্নভাবে প্রকাশ করা হয়। একই সাথে আমি অতিসরলীকরণ করাকেও উপেক্ষা করেছি। নিঃশব্দ যােগাযােগ হল লােকজন, বাক্য, কণ্ঠস্বর ও শারীরিক নড়াচড়ার একটি জটিল প্রক্রিয়া ।

এমন মানুষ সবসময় থাকবে যারা আতংকে হাত ছড়িয়ে দেয় আর বলে যে শারীরিক ভাষা হল মানুষের রহস্য ও ভাবনা পাঠের মাধ্যমে অন্যদের ক্ষতি বা কর্তৃত্ব করার আরেকটি বৈজ্ঞানিক জ্ঞান।

এই বডি ল্যাংগুয়েজ pdf download বই পাঠকদেরকে অন্যান্য মানুষের সাথে সম্পর্ক স্থাপনের ব্যাপারে যথেষ্ট অন্তৰ্জন দেবে যাতে সে অন্যদেরকে ও নিজেকে গভীরভাবে বুঝতে পারে। কোনকিছু বুঝতে পারলে সেটা সহজতর হয়ে উঠে আর বুঝার কমতি ও অজ্ঞতা ভয় ও কুসংস্কারের জন্ম দেয় এবং অন্যদের ব্যাপারে আমাদেরকে অনেক জটিল করে তােলে।বডি ল্যাংগুয়েজ pdf download link! 

একজন পক্ষীপর্যবেক্ষক এজন্য পাখিদের ব্যাপারে গবেষণা করেন যাতে সে তাকে মেরে ফেলে ও ট্রফি হিসেবে রাখে। একইভাবে নিঃশব্দ যােগাযােগের জ্ঞান ও দক্ষতা অন্য মানুষদের সাথে মেলামেলার ক্ষেত্রে দারুণ অভিজ্ঞতার জন্ম দেবে।

এই বডি ল্যাংগুয়েজ pdf download / body language pdf download  বইটি মূলত: সেলসম্যান, সেলস ম্যানেজার ও এক্সিকিউটিভদের ওয়ার্কিং ম্যানুয়েল হিসেবে শুরু হয়েছিল, তবে দশ বছরের গবেষণা ও সংগ্রহে এটি এত সমৃদ্ধ হয়েছে যে যেকোন পেশার মানুষ জীবনের সবচেয়ে জটিল ঘটনাবলীকে ভালভাবে বুঝার জন্য এই বডি ল্যাংগুয়েজ pdf download বইটি ব্যবহার করতে পারে।

অন্যান্যদের সাথে মুখােমুখি আলাপচারিতায়ও এটি সমান গুরুত্বপূর্ণ ।body language pdf download. 

বডি ল্যাংগুয়েজ pdf download সমঝােতার নির্মাণ কোশল ❤বিংশ শতাব্দীর শেষ প্রান্তে দাঁড়িয়ে আমরা এক নতুন ধরনের সমাজবিজ্ঞানীর গুরুত্ব প্রত্যক্ষ করছি, যার নাম নন-ভাৰ্বালিস্ট। বার্ডওয়াচার যেমন পাখি ও তার আচরণকে প্রত্যক্ষ করে আনন্দ পায়, নন-ভাৰ্বালিস্ট মানুষের অনুচ্চারিত ইশারা ও অঙ্গভঙ্গি দেখে আনন্দ লাভ করে।

সে সামাজিক অনুষ্ঠানে, সমুদ্র সৈকতে, টেলিভিশনে, অফিসে বা যেকোন স্থানে মানুষের আচরণ লক্ষ্য করে। সে হল আচরণের একজন ছাত্র যে অন্যান্য মানুষের কার্যক্রম সম্পর্কে শিখতে চায় যাতে সে নিজের এবং অন্যান্যদের সাথে সম্পর্কের উন্নয়নের ব্যাপারে আরাে বেশি কিছু জানতে পারে ।

ব্যাপারটি অবিশ্বাস্য মনে হয় যে মানুষের বিবর্তনের লক্ষ লক্ষ বছর ধরে ১৯৬০ সাল পর্যন্ত যােগাযােগের নিঃশব্দ মাধ্যমকে তেমন গুরুত্বই দেয়া হয়নি। আর এর অস্তিত্ব সম্পর্কে মানুষ সচেতন হয় ১৯৭০ সালে যখন জুলিয়াস ফাস্ট শারীরিক ভঙ্গিমার উপর একটি বই প্রকাশ করেন।

তৎকালীন সময় পর্যন্ত অনুচ্চারিত যােগাযােগের ব্যাপারে বিজ্ঞানীরা যতগুলাে কাজ করেছেন, সেগুলাের সারসংক্ষেপ ছিল ঐ বইটি। এমনকি আজো বেশিরভাগ মানুষ শারীরিক ভাষার অস্তিত্বের ব্যাপারে অজ্ঞ, জীবনে সেগুলাের গুরুত্বের কথাতাে ছেড়েই দিলাম ।বডি ল্যাংগুয়েজ pdf download link!  

চার্লি চ্যাপলিন ও আরাে কিছু মুকাভিনেতা ছিলেন নিঃশব্দ যােগাযােগের দক্ষতার ক্ষেত্রে অগ্রগণ্য। পর্দায় তাদের অঙ্গভঙ্গি ছিল যােগাযােগের একমাত্র মাধ্যম। একজন অভিনেতার শারীরিক ভঙ্গিমা ও ইশারার দক্ষতার উপর বিচার করা হত তিনি ভালাে না খারাপ। যখন সবাক চলচ্চিত্র জনপ্রিয় হল ও নির্বাক অভিনয়ের গুরুত্ব কমে গেল, অনেক মুকাভিনেতা তাদের দক্ষতা নিয়ে হারিয়ে গেলেন।

শারীরিক ভাষার ক্ষেত্রে প্রাক-বিংশ শতকের সবচেয়ে কার্যকরী গ্রন্থ সম্ভবত :

চার্লস ডারউইনের ‘দা এক্সপ্রেশন অব দা ইমােশানস ইন ম্যান এন্ড এনিমেলস’, যা ১৮৭২ সালে প্রকাশিত হয়েছিল । এই বইটি মুখাপেক্ষী ও শারীরিক ভাষার আধুনিক জ্ঞানের জন্ম দেয় এবং বিশ্ব জুড়ে এখনাে ডারউইনের তথ্য ও পর্যবেক্ষণ সচল রয়েছে। তখন থেকে গবেষকরা প্রায় এক মিলিয়ন অনুচ্চারিত ইশারা ও সংকেত নােট ও রেকর্ড করেছে ।

আলবার্ট মেহরাবিয়ানের মতে যেকোন বার্তার এস, উচ্চাবিত (কথা) ৩৮, কণ্ঠসম্বন্ধীয় (কণ্ঠস্বর, স্বরবিভেদ ও অন্যান্য শব্দ) এবং ৫৫% অনুচ্চারিত । প্রফেসর বার্ডউইস্টেল মানুষের অনুচ্চারিত যােগাযােগ মাধ্যমের প্রায় একইরকম পরিমাণ হিসাব করেছেন। 

তিনি হিসাব করে দেখেছেন যে প্রতিটি মানুষ গড়ে দিনে ১০ বা ১১ মিনিট কথা বলে আর প্রতিটি বাক্য গড়ে ২.৫ সেকেন্ড সময় নেয়। মেহরাবিয়ানের মত তিনিও বলেছেন যে মানুষ মুখােমুখি ৩৫% এর কম কথা বলে আর ৬৫% যােগাযােগ করে অঙ্গভঙ্গির মাধ্যমে।

বেশিরভাগ গবেষকরা একমত হয়েছেন যে উচ্চারিত মাধ্যম প্রাথমিকভাবে তথ্য দেয়ার কাজে ব্যবহৃত হয় আর অনুচ্চারিত মাধ্যম আন্তঃ ব্যক্তিগত আচরণ প্রকাশ ও কিছু ক্ষেত্রে উচ্চারিত তথ্যের বিকল্প হিসেবে ব্যবহৃত হয়। উদাহরণ স্বরূপ বলা হয়, একজন মহিলা কোন পুরুষের দিকে ‘খুন করে ফেলার দৃষ্টিতে তাকাতে পারে। মুখ না খুলেই সে পুরুষটিকে একটি পরিষ্কার খবর জানায় ।বডি ল্যাংগুয়েজ pdf download. 

বার্ডউইস্টেল বলেন যে একজন প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ব্যক্তি যেকোন মানুষের কণ্ঠস্বর শুনে বলতে পারবে যে সে কোন ভঙ্গিতে আছে। বার্ডউইস্টেল শিখেছিলেন কারাে অঙ্গভঙ্গি দেখে তার ভাষা কি করে বােঝা যায় ।

অনেক মানুষের একথা মেনে নিতে সমস্যা হয় যে মানুষ জীববিদ্যার ভাষায় এখনও জন্তু। হােমাে স্যাপিয়ান হল স্তন্যপায়ী, কেশবিহীন বানর প্রজাতির একটি গােত্র, যারা দুই পায়ে ভর দিয়ে চলতে শিখেছে এবং যাদের বুদ্ধিমান ও অগ্রসরমান একটি ব্রেন রয়েছে। 

অন্যান্য প্রাণীদের মত আমরা জীবদ্যিা সম্বন্ধীয় নীতি দ্বারা পরিচালিত হই, যা আমাদের কার্যক্রম, প্রতিক্রিয়া, শারীরিক ভাষা ও অঙ্গভঙ্গিকে নিয়ন্ত্রণ করে। মজার ব্যাপার হল মানুষ জানেই না যে তার দেহভঙ্গি, নড়াচড়া ও ইশারা একটি গল্প বলতে পারে, যখন তার কণ্ঠস্বর অন্য কিছু বলে।

বডি ল্যাংগুয়েজ pdf download অন্তৰ্জ্জন, স্বজ্ঞা ও মনে হওয়া:- 

যুক্তি দিয়ে বিচার করলে যখনই আমরা কোন মানুষের অন্তৰ্জ্জন বা স্বজ্ঞার কথা বলি, আমরা তার সেই ক্ষমতার ইঙ্গিত করি, যার মাধ্যমে সে মানুষের অব্যক্ত ইশারা পড়তে পারে আর তাকে উচ্চারিত বক্তব্যের সাথে তুলনা করতে পারে। 

অন্যভাবে বলা যায়, কেউ মিথ্যে বললে যখন আমাদের অস্বস্থিবােধ হয়, আমরা বুঝাতে চাই যে তার মুখের ও মনের ভাষা এক নয়। একেই বলা হয় শােতার সচেতনতা।

যেমন- কোন দর্শক যদি পিছনের সারিতে চিবুক নামিয়ে ও বুকের উপর হাত আড়াআড়ি রেখে বসে, বক্তার মনে হয় যে শ্রোতার বুঝি শুনতে ভালাে লাগছে না। 

তিনি সচেতন হয়ে ভাবেন যে তার এমন কিছু বলা উচিত যাতে শ্রোতা আকৃষ্ট হবে। একইভাবে বক্তা যদি উপলব্ধি করতে না পারেন, তবে তিনি অনর্থক বলতে থাকবেন। মহিলারা পুরুষের চেয়ে অনেক ভালােভাবে উপলব্ধি করতে পারে আর তাই বলা হয় যে মহিলাদের উপলব্ধি।”

অনুচ্চারিত ইঙ্গিত বুঝা ও তুলনা করা এবং ছােটখাট বিষয়ে তীক্ষ্ণ নজর রাখা মহিলাদের জন্মগত ক্ষমতা। এজন্যই পুরুষেরা মহিলাদের সাথে মিথ্যা বলে সারতে পারে না আর খুব সহজেই মহিলারা তাদের সেই মিথ্যাচার বুঝে ফেলে।

এই অন্তর্জান সেইসব মহিলাদের মধ্যে প্রবল যারা শিশুদের লালন পালন করে। প্রথম কয়েক বছর সন্তানদের নিঃশব্দ অঙ্গভঙ্গির উপর মায়েদের পুরােপুরি নির্ভর করতে হয় আর এজন্যই পুরুষদের চেয়ে মহিলাদের বােধশক্তি অনেক প্রখর বলে বিশ্বাস করা হয় ।

জন্মগত, বংশগত, শিক্ষাগত ও সাংস্কৃতিক সংকেত অনুচ্চারিত সংকেত জন্মগত, শিক্ষাগত, বংশানুক্রমিক স্থানান্তরিত না,অন্যভাবে অর্জিত, এ বিষয়ে বিস্তর গবেষণা ও বিতর্ক হয়েছে। বিভিন্ন অন্ধ ও বােবা মানুষ, যারা দেখে বা শুনে কোন রকম নিঃশব্দ ইঙ্গিত শেখেনি, বিশ্বের বিভিন্ন সংস্কৃতির মানুষের অঙ্গভঙ্গি ও আমাদের নিকটতম প্রজাতি বানরশ্রেণীর আচরণ লক্ষ্য করে নানারকম প্রমাণ যােগাড় করেছে।

গবেষণার চূড়ান্ত পর্যায় নির্দেশ করে যে কিছু অঙ্গভঙ্গি একই শ্রেণীতে অন্তর্ভুক্ত থাকে। যেমন- বেশিরভাগ স্তন্যপায়ী শিশু দুধপান করার ক্ষমতা নিয়ে জন্মায়, যেটা জন্মগত বা উত্তরাধিকার সূত্রে প্রাপ্ত হতে পারে। জার্মান বিজ্ঞানী ইবেল ইবেসফেল্ট বলেছেন যে বােবা ও অন্ধ শিশুদের হাসিমুখ হল।

স্বাধীনভাবে শেখা ভঙ্গি, যা জন্মগত ভঙ্গিমার প্রতি নির্দেশ করে। পাঁচটি বিভিন্ন সংস্কৃতির মানুষের হাসিমুখ পর্যবেক্ষণের পর একমান, ফেসিন ও সরেন্সন জন্মগত ভঙ্গিমার ব্যাপারে ডারইউনের কতিপয় বিশ্বাসের সাথে ঐক্যমত পােষণ করেছেন। তারা দেখেছেন যে প্রতিটি সংস্কৃতির মানুষ একই ধরনের মুখভঙ্গি প্রদর্শন করেছে আবেগ প্রকাশের ক্ষেত্রে, যা ইঙ্গিত করে যে এই ভঙ্গিমাগুলাে নিশ্চয়ই জন্মগত ।

যখন আপনি বুকের উপর আড়াআড়ি হাত রাখেন, বামের উপর ডান না ডানের উপর বাম রাখেন? বেশিরভাগ মানুষই এর জবাব দিতে পারেনা যদি নিজেকে লক্ষ্য করে। কেউ হয়ত এক ভঙ্গিতে আরাম পায় যখন অন্যজন সেই একই ভঙ্গিতে অস্বস্থিবােধ করে। প্রমাণাদি থেকে মনে হয় এটি হয়ত বংশগত কোন ভঙ্গিমা, যা বদলানাে সম্ভব হয় না।

শারীরিক ভাবভঙ্গি সংস্কৃতি থেকে শিখে মানুষ অভ্যস্থ হয়, না বংশানুক্রমে পায়, সে বিষয়ে আজো বিতর্ক রয়েছে। যেমন, বেশিরভাগ মানুষ ডান হাতে দ্রুত কোট পড়তে পারে, আর বেশিরভাগ মহিলা সেটা বাম হাতে তাড়াতাড়ি পড়তে অভ্যস্থ।

ভিড়ের মধ্যে কোন পুরুষ ও মহিলা যখন পরস্পরকে অতিক্রম করে, পুরুষ নিজেকে মহিলার দিকে ঘুরায় আর মহিলা নিজেকে পুরুষের কাছ থেকে দূরে রাখে। মহিলা কি নিজের বক্ষ নিরাপদ রাখার জন্য সহজাতভাবে এমন করে? এটা কি তার জন্মগত, নাকি সে অন্য মহিলাদের দেখে অবচেতন মনে এটি ধারণ করে?

আমাদের বেশিরভাগ নিঃশব্দ আচরণ এভাবে শেখা হয় আর অনেক নড়াচড়া ও ভঙ্গিমার অর্থ সংস্কৃতির ধারায় নিহিত থাকে। আসুন শারীরিক ভাষায় নিমলিখিত ধারণাগুলাে জানা যাক।

body language pdf download কিছু মৌলিকত্ব ও তাদের উৎপত্তি:- 

যােগাযােগের বেশিরভাগ মৌলিক ভঙ্গিমা সারা বিশ্বে একই রকম। মানুষ যখন সুখী হয়, তারা হাসে; দুঃখিত বা রাগান্বিত হলে ভ্রু কুঁচকায় বা বিষন্ন হয় । মাথা নাড়ানােকে আন্তর্জাতিকভাবে ‘হা’ বা ইতিবাচক বােঝায় ।

এক্ষেত্রে মাথা উপর নীচে দোলানাে হয় আর সম্ভবত: একটি জন্মগত ভঙ্গি, কারণ বােবা ও অন্ধ ব্যক্তিরা এমন করে। পাশাপাশি মাথা নাড়ানােকে আন্তর্জাতিকভাবে ‘না’ বা নেতিবাচক ধরা হয় এবং সম্ভবত: এই ভঙ্গিমা নিস্পাপ অবস্থায় শেখা হয়। 

একটি শিশুর যখন পেট ভরে যায়, মাতৃদুগ্ধ আর না খাওয়ার জন্য সে এদিক ওদিক মাথা নাড়ে। একটি সন্তানের যখন খাওয়া হয়ে যায়, সে মায়ের চামচকে অগ্রাহ্য করার জন্য ডানে বামে মাথা নাড়ে আর এভাবেই দ্বিমত প্রকাশ বা নেতিবাচক আচরণের জন্য মাথা নাড়ার বিষয়টি শিখে নেয় ।

কিছু ভঙ্গিমার উৎপত্তি আমাদের প্রাগৈতিহাসিক কালের সাথে যুক্ত। দাঁত কিড়মিড় করা হল আক্রমণের ভঙ্গি থেকে উদ্ভূত আর এখনাে আধুনিক মানষেবা শকতা প্রকাশের ক্ষেত্রে এমন কৰে যদিও তারা দাঁত দিয়ে।

তাই আর দেরী না করে বডি ল্যাংগুয়েজ pdf download / body language pdf download  বইটি ডাউনলোড করতে নিচের ডাউনলোড বাটন এ ক্লিক করুন। 

Size:-54MB.   

body language pdf download / বডি ল্যাংগুয়েজ pdf download বইটির হার্ড কফি ক্রয় করুন:-    

Rokomari.com | Aadi.com

বডি ল্যাংগুয়েজ pdf download বইটির রিভিউ দিতে (ক্লিক_করুন)

Tags

ADR Dider

Best bangla pdf download, technologies tips,life style and bool, movie,smartphone reviews site.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close
Close

Ad blocker detected

Plz turn off your ad blocker to continue in this website...