bangla pdf booksTips and tricks

দ্য ওয়ান মিনিট ম্যানেজার pdf download

নাম:- দ্য ওয়ান মিনিট ম্যানেজার pdf download 

দ্য ওয়ান মিনিট ম্যানেজার pdf লেখক:- কেন ব্ল্যনচার্ড। 

পৃষ্ঠা:- ৯১। 

সাইজ:- ১০এম্বি।

দ্য ওয়ান মিনিট ম্যানেজার pdf বইয়ের প্রথম কিছু অংশ:-      

দ্য সার্চ:-

পৃথিবীটা বদলে যাচ্ছে খুব দ্রুত। তুখােড় প্রতিভাবান এক তরুণ এই সময়ে খোজ করছিল এমন কোনাে ম্যানেজারের, যে আজকের পরিবর্তনশীল সময়ে সঠিকভাবে নেতৃত্ব দিতে পারেন। এমন কাউকে সে খুঁজছে, যিনি অধীনস্তদের চাকরির সঙ্গে ব্যক্তিগত জীবনে সমন্বয় আনতে উৎসাহিত করেন। তাদের দুটো জীবনই যেন অর্থপূর্ণ আর উপভােগ্য হয়ে ওঠে সেদিকে নজর রাখেন। এমন কারাে সঙ্গেই এই প্রতিভাবান তরুণটি কাজ করতে চায়, ভবিষ্যতে হয়ে উঠতে চায় এমনই একজন নেতা।

অনেকগুলাে বছর ধরে এই খোজ চালিয়ে গেল সে, খুঁজল পৃথিবীর নানা প্রান্তে। ছােট ছােট শহরে তাে বটেই, পরাশক্তি হিসেবে চিহ্নিত কয়েকটি দেশের রাজধানী পর্যন্ত বাদ রইল না। অসংখ্য ম্যানেজারের সঙ্গে কথা বলল তরুণটি, দ্রুত পাল্টে যেতে থাকা পৃথিবীর সঙ্গে খাপ খাওয়ানাের জন্য এদের প্রত্যেকেই সর্বশক্তি দিয়ে চেষ্টা করে যাচ্ছেন।দ্য ওয়ান মিনিট ম্যানেজার pdf download link !!! 

ম্যানেজারদের মধ্যে ছিলেন ব্যবস্থাপক, উদ্যোক্তা, সরকারি প্রশাসনের কর্মকর্তা, সেনাবাহিনীর সদস্য, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেসিডেন্ট আর ফাউন্ডেশন ডিরেক্টরবৃন্দ, বড় বড় দোকানের, রেস্তোরাঁর, ব্যাংকের ম্যানেজাররাও বাদ গেলেন না, নারী-পুরুষ নির্বিশেষে।

যত ধরনের অফিস আছে, কোনােটাতেই যাওয়া বাকি রাখল না তরুণ, বড় হােক আর ছােট, বিলাসবহুল হােক কিংবা সংকীর্ণ, জানালা থাকুক আর না থাকুক। সারা বিশ্বে কীভাবে মানুষকে ব্যবস্থাপনার মধ্যে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে সেই দৃশ্য ধীরে ধীরে তার সামনে উন্মােচিত হলাে।

অধিকাংশ সময়ই, এই দৃশ্যটা তাকে মােটেও সন্তুষ্ট করতে পারল না।

তরুণ খেয়াল করল, অনেক কড়া ম্যানেজার রয়েছেন, এদের প্রতিষ্ঠান প্রতিবারই জিতে যাচ্ছে, তবে হেরে যাচ্ছে সেখানে কাজ করা কর্মীগণ। কেউ কেউ মনে করেন এরাই ম্যানেজার হিসেবে শ্রেষ্ঠ, তবে বেশিরভাগ মানুষ এমন ধারণার সঙ্গে দ্বিমত পােষণ করবেন।

এই কড়া লােকগুলাের অফিসে গিয়ে তরুণটি প্রশ্ন রেখেছিল, “নিজেকে কেমন ধারার ম্যানেজার বলে মনে করেন?”

প্রায় একই উত্তর এলাে তাদের থেকে, “আমি একজন বটমলাইন ম্যানেজার, সব সিদ্ধান্ত আমি-ই নিয়ে থাকি।” তরুণটির কানে কিছু শব্দ বারবার এলাে, ‘অদম্য।’ বাস্তববাদী।’ “মুনাফার দিকে মনােযােগ রাখি সবার আগে।”

ওরা জানাল, সারা জীবন ধরে এভাবেই ম্যানেজ করে আসছে তারা। পরিবর্তনের কোনাে দরকার দেখেনি।

তরুণটির সঙ্গে দেখা হলাে অনেক ‘মিশুক ম্যানেজারের সঙ্গে, এদের সঙ্গে কাজ করা কর্মীরা সব সময়ই জিতে যায়, তবে হেরে যায় তাদের প্রতিষ্ঠানগুলাে। কেউ কেউ এদের দারুণ ম্যানেজার মনে করেন,তবে অনেকেই জানালেন তারা এই মতামতের সঙ্গে একমত হতে পারেননি। একই প্রশ্ন এই মিশুক ম্যানেজারদের করা হলে তারা উত্তর দিল, “আমি সিদ্ধান্ত দিয়ে বসে না থেকে বাকিদের সঙ্গে অংশ নিতে ভালােবাসি।”

এখানে শােনা গেল “পাশে থাকি।” “বিবেচনা করি।” “মানবতার পক্ষে।” ইত্যাদি শব্দমালা।

এরাও জানালেন, আজীবন এমন ভাবেই ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করে এসেছেন তারা। পরিবর্তনের কোনাে কারণই দেখেন না। বলার সময় তাদের গলায় গর্বের ছাপটা শােনা গেল স্পষ্ট। তরুণ বুঝতে পারল এরা মানুষ নিয়ে কাজ করতে ভালােবাসেন।

তারপরও, তার মন অশান্তই রইল। তরুণটি খেয়াল করল, সৃষ্টির শুরু থেকে এখন পর্যন্ত প্রায় সব ম্যানেজারই স্রেফ দুভাবে কাজটা করে যাচ্ছেন। হয় তারা মনােযােগে পুরােটাই দিচ্ছেন ফলাফলে, নয়তাে কর্মীদের স্বার্থের দিকে। এদিকে ফলাফল-নির্ভর ম্যানেজারদের অনেকেই ‘স্বৈরাচারী’ বলে চিহ্নিত করছেন, আবার কর্মীদের প্রতি কোমল স্বভাবের ম্যানেজারদের কেউ কেউ ডাকছেন ‘গণতান্ত্রিক’ বলেন।

সে খেয়াল করল,

এই কড়া স্বৈরাচারী আর কোমল গণতান্ত্রিক ম্যানেজারদের দুই শ্রেণিই অংশবিশেষে কার্যকর। এ যেন অনেকটা আধ-ম্যানেজার হওয়ার মতাে একটা ব্যাপার।’ তরুণ ভাবল। বাড়ি ফিরল ক্লান্তি আর হতাশা নিয়ে।

তার মনে হলাে, অনেক অনেক দিন আগেই উচিত ছিল এই খোজ ছেড়ে দেওয়া। তবে দীর্ঘদিনের খোঁজাখুঁজির কল্যাণে একটা বাড়তি সুবিধা প্রতিভান সেই তরুণ পেয়েছিল। ও জানত, ঠিক কোন ধরনের ম্যানেজার সে খুঁজছে।

‘এমন কাউকে দরকার যিনি নিজের সঙ্গে অন্য কর্মীদের ব্যবস্থাপনা করেন এমনভাবে যেন কর্মীদের সঙ্গে প্রতিষ্ঠানও লাভবান হতে পারে।’ সে ভাবল, এই পরিবর্তনের জগতে এমন ম্যানেজাররাই তাে সবচেয়ে কার্যকর হওয়ার কথা।

কার্যকর এই ম্যানেজারের জন্য আবারও খোঁজ শুরু হলাে তার। মাত্র কয়েকজনকে পাওয়া গেল এবার, তবে এদের কেউ তরুণকে নিজেদের সফলতার রহস্য ভেঙে বলতে রাজি হলেন না। তরুণ হতাশ হলাে, আরও একবার। ঠিক যার খোঁজ করছিল তা হয়তাে সে কখনােই পাবে না।

এমন যখন পরিস্থিতি, জনৈক ম্যানেজারের নামে দারুণ সব তথ্য শুনতে পেল সে। আরও ভালাে ব্যাপারটা হলাে, এই ম্যানেজার কাছাকাছি এক শহরে থাকেন। তরুণ শুনল, এই ম্যানেজারের অধীনে মানুষ কাজ করতে ভালােবাসে! দিন শেষে প্রাতিষ্ঠানিকভাবে ওরা সবাই সফলতার দেখাও পায়।

এই কানাঘুষাে কি আসলেই সত্য?

যদি তেমনটা হয়ে থাকে, তবুও কি এই দ্রলােক তার সঙ্গে নিজের সফলতার রহস্য শেয়ার।  

দ্য ওয়ান মিনিট ম্যানেজার pdf/দ্য নিউ ওয়ান মিনিট ম্যানেজার:- 

ম্যানেজারের অফিসে পৌছে তরুণ খেয়াল করল, ভদ্রলােক জানালা দিয়ে বাইরে তাকিয়ে আছেন। ঘুরে তার দিকে তাকিয়ে বসার জন্য অনুরােধ জানালেন তিনি। যােগ করলেন, “বলুন এবার, আপনার জন্য কী করতে পারি?”

“আপনার ব্যাপারে চমৎকার সব কথা শুনেছি, স্যার। কীভাবে ব্যবস্থাপনার দায়িত্বটা সামলান তা নিয়ে আমি আরও জানতে চাই।”

“বেশ, শুনুন তবে। আমরা আসলে পরীক্ষিত পদ্ধতিগুলাের সঙ্গে নতুন কিছু পন্থা যােগ করে নিয়েছি, এছাড়া আধুনিক দুনিয়ায় তাল মেলানাে তাে কঠিনই। সে যাকগে, ও ব্যাপারে আরও পরে কথা বলব আমরা, কেমন?

একেবারে মৌলিক বিষয়গুলাে থেকে শুরু করা যাক। “আমরা একসময় টপ-ডাউন ম্যানেজড কোম্পানি ছিলাম। আগে এমনটা যে কাজ করেনি, তা নয়। তবে আজকের দিনে এমন স্ট্রাকচার অনেক মন্থরগতির। কাজ করতে মানুষকে আলাদা করে উৎসাহিত করে এই পদ্ধতি, থমকে দেয় আবিষ্কার। 

এদিকে ক্রেতাদের দেখুন, তারা চায় দ্রুত সেবা, আগের চেয়েও ভালাে পণ্য। তাহলে সবাইকে নিজেদের প্রতিটুকুর মাধ্যমে অবদান রাখতে হবে, প্রতিষ্ঠানকে সফল করতে হলে এর বিকল্প নেই। শুধু এক এক্সিকিউটিভ অফিসেই নয়, গােটা প্রতিষ্ঠানজুড়েই মস্তিষ্ক খাটানাের অভ্যাস দেখতে পাবেন আপনি এখন।”

“গতিময়তাই যেহেতু আজকের সফলতা-জগতের মূলমন্ত্র, সঙ্গে থেকে নেতৃত্ব দেওয়ার প্রয়ােজনটাও চড়া। আগের মতাে নির্দেশনা দাওনিয়ন্ত্রণ করাে ধারার ম্যানেজমেন্ট এখন আর তেমন কার্যকর নয়।” “সঙ্গে থেকে নেতৃত্বটা কীভাবে দেন আপনি?” প্রশ্ন করল তরুণ।

ওয়ন মিনিট ম্যানেজার ২/দ্য ওয়ান মিনিট ম্যানেজার pdf :- 

“আমা: টিমের সঙ্গে প্রতি বুধবার সকালে দেখা , এই আপনাকে আমি ঐ সময়টা দিতে পাff।। এই মিটিংগুলোয় আমার দলের সবার ভিউ , বিশ্লেষণ করি গত সপ্তাহে তারা কেট।

অন্য করেছে,

কোন সব সমস্যার মুখে পড়েছে, কে কোন অর্থএখনও বাকি থেকে গেছে, এই অণ্ডগুলোর ও তাদের বর্তমা পরিকল্পনা আর কর্মপদ্ধতি কী।”

“এই সিদ্ধাওগুলাে তাহলে আপনি এবং আপনার টিম, দুপক্ষই নিয়ে থাকেন?

“অবশ্যই। এই মিটিংগুলাে ডাকার উদ্দেশ্যই তো সবাইকে দিয়ে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তগুলাে নেওয়ানাে যে তারা এর পর কী করবে।”

“তবে তাে আপনি একজন সহায়তপ্রেমী ম্যানেণ্ডার, নন কি?”

“ঠিক তাও নয়, ওদের কাণ্ডটা সহজ করে দেওয়ার চেষ্টা করি কেবল। তারা কী সিদ্ধান্ত নেবে তার মধ্যে গিয়ে অংশ নেই না কখনাে।”

“তাহলে মিটিং ডাকার উদ্দেশ্যটা কি আপনার?”

“আপনাকে মাত্রই তাে বললাম সেটা।”

তরুণ ছেলেটি এবার একটু অপ্রস্তুত হয়ে গেল। এমন একটা ভুল করে ফেলার জন্য আক্ষেপ হলাে তার।

ম্যানেজার ভদ্রলােক কথা বলা থামালেন। বড় করে শ্বাস নিলেন তিনি, “আমরা এখানে ফলাফল আনার চেষ্টা করি। সবার প্রতিভাকে একীভূত করে বাড়ানাের চেষ্টা করি উৎপাদন।”

“আচ্ছা, তাহলে আপনি মানুষ নয়, ফলাফলটার দিকেই মূল মনােযােগ দেন।”

উঠে দাঁড়ালেন ম্যানেজার, পায়চারি শুরু করলেন। “দ্রুত সফলতা পাওয়ার জন্য ম্যানেজারকে অবশ্যই অধীনস্ত মানুষ আর ফলাফল, দুইয়ের দিকে সমান মনোেযােগ দিতে হবে। মানুষগুলাে কাজ না করলে ফলাফলটা আমরা কেমন করে পাব, বলুন? সেজন্য আমি আমার কর্মীদের ব্যাপারে যেমন ভাবি, তেমন ডাবি ফলাফল নিয়েও। কারণ, একটা ছাড়া আরেকটা সম্ভব নয়।” 

“এটা একবার দেখে যান, নিজের কম্পিউটারের দিকে ইঙ্গিত করলেন তিনি, “আমার কম্পিউটারের স্ক্রিন সেভার হিসেবে এটা সেট করে রেখেছি। বাস্তববাদী এই সত্য কথাটা যেন আমাকে এটা বারবার মনে করিয়ে দিতে পারে, তাই।”

নিজেদের ব্যাপারে ভালাে কিছু অনুভব করলেই কেবল একজন ভালাে ফলাফল আনায় অবদান রাখতে পারে।

কমবয়সি ছেলেটা স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে দেখছে, তার উদ্দেশে ম্যানেজারটি বললেন, “নিজেই চিন্তা করে দেখুন। আপনি কখন নিজের সেরাটা দিয়ে কাজ করেন? যখন আপনি নিজের কর্মক্ষমতা নিয়ে ভালাে কিছু অনুভব করছেন তখন? নাকি অন্য কোনাে পরিস্থিতে?”

ব্যাপারটা বুঝতে পারল এবার তরুণ ছেলেটি, “যখন নিজের ব্যাপারে ভালাে অনুভব করি, তখন, অবশ্যই।” “সেটাই। শুধু আপনি নন, মানুষ মাত্রই এমনটা অনুভব করে থাকেন।” দ্য ওয়ান মিনিট ম্যানেজার pdf 

“তাহলে,” তরুণ ছেলেটি ধরার চেষ্টা করছে এখনও, “অন্যদের ভালাে কিছু অনুভব করানাে উৎপাদনশীলতার পক্ষে কাজ করে?” “জি। সেই সঙ্গে মনে রাখবেন, উৎপাদনশীলতা কিন্তু স্রেফ কত বেশি কাজ করা হলাে তা নয়, বরং কতটা দক্ষতার সাথে করা হলাে, তাও এর সঙ্গে বিবেচনায় রাখতে হবে।” জানালার কাছে গিয়েদাঁড়ালেন তিনি, “এটা লক্ষ করুন।”

তরুণ প্রতিভাবান ছেলেটি জানালার কাছে পৌছে গেলে তিনি নিচের এক রেস্তোরা দেখিয়ে দিলেন, “দেখুন, এই রেস্তোরাঁয় কতজন খেতে ঢুকছে?”

তরুণটি দেখল, মানুষ রেস্তোরার বাইরে লাইন দিয়ে দাড়িয়ে আছে। “রেস্তোরাঁ খােলার জন্য খুব চমৎকার এক অবস্থান বলে ধারণা করছি।” বলল সে। ▪

ম্যানেজারটি হাসলেন, “সেটাই যদি ঘটনা হয়, তাহলে মাত্র দুই দরজা পর যে আরেকটা রেস্তোরাঁ আছে, ওটার দরজায় মানুষ লাইন দিয়ে দাঁড়াচ্ছে না কেন?”

“কারণ, প্রথমটায় খাবার আর সেবার মান ভালাে?” “হ্যা, এটা খুব সহজে বােঝা যায়। মানুষকে মানসম্মত পণ্য আর সেবা না দিলে ব্যবসায় আপনি কখনােই বেশিদিন টিকতে পারবেন না।

“তবে চোখের সামনে থাকা জিনিসটা ধরাও অনেক সময় কঠিন মনে হয়। এসব সফল ফলাফল আনার ক্ষেত্রে শ্রেষ্ঠ পদ্ধতি হলাে মানুষকে নিয়ে কাজ করা। ঐ রেস্তোরার ভেতরে কাজ করা মানুষগুলােই এই সফলতার জন্ম দিয়েছে।”

কৌতূহল আরও বেড়ে গেল তরুণটির। দুজনই বসে পড়ার পর জানতে চাইল, “আপনি তাে এরই মধ্যে বলেছেন, সহায়তাপ্রেমী ম্যানেজার আপনি নন। তাহলে নিজেকে কীভাবে ব্যাখ্যা করবেন?”

“ওরা আমাকে ডাকে নিউ ওয়ান মিনিট ম্যানেজার/ দ্য ওয়ান মিনিট ম্যানেজার pdf. এখন তরুণের চেহারায় পরিস্কার বিস্ময় ফুটে উঠেছে, “কী?”

ভদ্রলােক এবার হেসে ফেললেন, “আসলে, নতুন নতুন পথে অল্প সময়ে দারুণ কিছু ফলাফল আনার জন্য আমরা কাজ করছি তাে, তাই।” অসংখ্য ম্যানেজারের সঙ্গে কথা বললেও এভাবে কাউকে কথা বলতে সে আগে দেখেনি। এই লােক দারুণ ফলাফল আনতে পারে, অথচ সেজন্য বিশেষ সময় দেয় না?

ভাবভঙ্গিতেই বাকিটা বুঝে নিলেন তিনি, “ঠিক বিশ্বাস করতে পারলেন না তাে আমার কথা?”

“স্বীকার করতেই হবে, এমনটা কল্পনা করাও আমার জন্য কঠিন।” আবার হাসলেন তিনি, “শুনুন, আমি কোন ধরনের ম্যানেজার তা যদি সত্যিই জানতে চান, তাহলে আমার টিমের দুই-একজনের সঙ্গে কথা বলছেন না কেন?”

কম্পিউটারের দিকে ঘুরে একটা পাতা প্রিন্ট করে বের করে আনলেন তিনি, তালিকা দেখা গেল একটা। এখানে আছে নাম, পজিশন আর ফোন নাম্বার, এই ছয়জন আমার কাছে রিপাের্ট করে।”….. To be continued….. 

দ্য ওয়ান মিনিট ম্যানেজার pdf :-তাই আর দেরী না করে দ্য ওয়ান মিনিট ম্যানেজার pdf বইটি ডাউনলোড করতে নিচের ডাউনলোড বাটন এ ক্লিক করুন।   

বিঃদ্রঃ দ্য ওয়ান মিনিট ম্যানেজার pdf বইটির হার্ড কফি ক্রয় করুন 

rokomari.com          

Tags

ADR Dider

Best bangla pdf download, technologies tips,life style and bool, movie,smartphone reviews site.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close
Close

Ad blocker detected

Plz turn off your ad blocker to continue in this website...